বাংলাদেশের কিছু কিছু ব্যান্ড || প্রবর রিপন

বাংলাদেশের কিছু কিছু ব্যান্ড || প্রবর রিপন

SHARE:

বাংলাদেশের কিছু কিছু ব্যান্ড জনপ্রিয়তা পায় না, — তারা বুদ্ধিবৃত্তিক, রাজনৈতিক, এবং বাজারী না বলে;  যেমন ম, ম, স, চি, সি, সা, বি।

এ নিয়ে কান্নাকাটির কিছু নেই। যা আসলেই ভালো তা ভালো বলে গৃহীত হবেই। খারাপের-ভেতর-অপেক্ষাকৃত-ভালো কিন্তু অবিসংবাদিত ভালো নয়, কোথাও তার ঘাটতি রয়ে গেছে। তাই ঘাটতি পূরণ হলে তা ভালো বলে গৃহীত হবে, হতে পারে আজকে নয় তা — কাল, তাই কান্নাকাটির কিছু নেই। বরং ঘাটতিটা খুঁজতে হবে, চোখ বন্ধ করে লাভ নেই।

জেমস বা আজম খানের গানও কিন্তু নতুন, আগন্তুক, — তখনকার গানের প্রচলিত ধারায় এক সন্ত্রাসী কাজ ছিল, — কিন্তু মানুষ নিয়েছে; কেননা তাদের ঘাটতি ছিল না। আমি এক প্রত্যন্ত গ্রামে মাত্র ১৩ বছর বয়সে পাগলের মতো কবীর সুমন — তখনকার সুমন চট্টোপাধ্যায় — শুনেছি, পাগলের মতো শুনেছি; কেননা তার ঘাটতি ছিল না।

আর দেশের ব্যান্ডগুলোর সাথে তুলনা করে কাউকে বড় করা বোকামি, — সারা পৃথিবীর রকব্যান্ডের সাথে তুলনা করে দেখা উচিত, তখন বোঝা যায় কে ভালো কে খারাপ। আফ্রিক্যান অজস্র ব্যান্ড কিন্তু সারা পৃথিবী কাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে।

আমাদের কান্নাকাটি করার চেয়ে নিজেদের ঘাটতি নিয়ে সরব হওয়া উচিত। নতুন সময়ের গান কোথায় হচ্ছে!! সব তো পুরনোর দুর্বল ভার্শন! বব ডিলান, রজার ওয়াটার্স, বব মার্লে, ভিক্টোর হারা, কবীর সুমন, পিট সিগারের গান শোনার পর মনে হয় আমরা যারা রাজনীতি-উপজীব্য গান বাঁধি তারা কি তাদেরকে অতিক্রম করতে পেরেছি? না, পারিনি।

আমাদের ঘাটতি আছে। আর সে-ঘাটতি সংবেদনশীলতার অভিনয় দিয়ে পূরণ করা যাবে না, যাবে সংবেদনশীল গান দিয়ে, — যা চূড়ান্ত সমসাময়িক, এবং মেদহীন, গতিশীল, চিন্তার জগতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী।

এবং ফ্রন্টম্যানকে হতে হবে জ্যোতির্ময়। মন্দের ভালো — ভালো নয়; যা মন্দের ভেতর উত্তম, তা আসলে উত্তম নয়। কণ্ঠের ভেতর পৃথিবীকে জাল পেতে ধরায় গান, সে-গান আর ক-জন গেতে পারে! ক-জন সে-গান নিজের হৃদয়কে আগে শুনতে দিয়েছে, যা শুনে সে আবার গাবে?!

… …

প্রবর রিপনের অন্যান্য রচনা
বাংলা গানের গড্ডালিকা || প্রবর রিপন
মরণোত্তর ফোক মিউজিক ও বাংলা গানের নাগরিক || প্রবর রিপন

COMMENTS

Posari IT Solution
error: