ব্লান্ট ভোয়েসেস (৭)

ব্লান্ট ভোয়েসেস (৭)

পিঠের একটা হাড্ডি প্রায় ভাইঙ্গা যাইতে লাগসিল ‘দ্য উল্ফম্যান’ সিনেমায় কাজ করার সময়। এত চোট পাইসিলাম যে মুখ দিয়া আওয়াজ বাইরাবার শক্তি ছিল না, মাথাটা সমানে নাড়াইতেসিলাম খালি। ভীষণ ফাঁড়া গেসিল আমার উপ্রে দিয়া ওই সময়টায়।

থিয়েটারে তো কাজ করতে চাই-ই। ভীষণ ভাল্লাগত ব্রডওয়েতে কাজ করতে পারলে।

সরলসোজা নায়িকা যদি প্রধান চরিত্র হয় তাইলে ক্যারেক্টার ফোটানো খুব হার্ড হয়। ক্যারেক্টারের ভিতরের স্ফুলিঙ্গটা বাইরে না আইনাও বুঝাইতে হয় তার দার্ঢ্য, চরিত্রের মজাটা বাইর করতে হয়। এই সবকিছু করতে হয় এমনভাবে যেন চরিত্রটা জ্যান্ত ও রিয়্যাল হয়া ওঠে।

উদার আর উষ্ণ মনের মানুষ হইলে আপনি অবশ্যই চাইবেন দুনিয়াটারে তার আপন গতিতে চলতে দিতে এবং আপনি শুধু দেখতে থাকবেন দুনিয়ার গতি ও শয়ন-যাপন প্রভৃতি বিচিত্র উঠবস। লোকে একেকজন একেক তরিকায় একই কাজ করে, একই কথা একেকজন বলে একেকভাবে, একেক ভঙ্গিমা দাঁড়াবার বসবার একেকজনের। আপনি শুধু দেখে যাবেন অভিনেবেশে এইসব এবং শুষে নেবেন নিজের ভিতরে। শুষে নেবার সময় বাছবিচার করতে যায়েন না, খালি চেষ্টা কইরেন এই মুহূর্তে আপনার হাতে-থাকা কাজের কোনটায় ক্যারেক্টার ডেভেলপ করার রসদ হিশেবে দেখাদেখির কোন টুকরাটা লাগাইবেন জিনিশটা বাইর করতে। আমি যে এতদিন ধরে কাজ করছি এই লাইনে, আমি হলফ করে বলতে পারব না যে আমি কাউরে মিমিক করছি কি না সরাসরি। জিনিশটা এমনই যে অভ্যাসে একবার এসে গেলে এরপরে আর আলাদা করা যায় না।

দামি জামাজুতা পইরা বাইরাইলা বাড়িত থিকা, বাইরায়াই করলা ইয়াব্বড় ভুল একখান। হইল কিসু? স্যুটটাই পইরা ভুল কইরো না, স্যুটটাইয়ের মান মারবা, নিজের মানের চিন্তা তো করলাই না জিন্দেগিতে।

চয়ন, সংকলন ও অনুবাদন : বিদিতা গোমেজ

… …

গানপার

COMMENTS

error: