পণ্য হুমায়ূন, অন্য হুমায়ূন || ইফতেখার মাহমুদ

পণ্য হুমায়ূন, অন্য হুমায়ূন || ইফতেখার মাহমুদ

SHARE:

হুমায়ূন আহমেদ নামখানা যে পণ্য হিসেবে যুতসই এটা নিয়ে বচসা না করলে বলি, লেখক হুমায়ূন আহমেদকে ইদানীং দেখছি, পণ্য হুমায়ূন আহমেদের সাথে লড়াই করে সবখানেই হেরে যাচ্ছেন।

পণ্য মাত্রই অর্থমূল্য বহন করে। টাকাপয়সার হিসাবে হুমায়ূনের দামও যথেষ্ট, যারা বেচাকেনার মধ্যে আছেন তারা এইসব ভালো করেই জানেন।

হুমায়ূনের অদ্বিতীয় খ্যাতি তাকে অর্থনৈতিকভাবে এখনো উৎপাদনক্ষম করে রেখেছে।

ব্র্যান্ড হিসেবেও অন্যদের সাথে তুলনায় হুমায়ূন অধিক প্রভাববিস্তারী। এখনো ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিযোগিতায় হুমায়ূন এদেশে দ্বিতীয় সারির হয়ে যাননি।

যেহেতু হুমায়ূন প্রথমত ‘তারকা’ নন (তারকা হচ্ছে এমন ব্যক্তি যিনি নিজ কাজে এত খ্যাতিমান হন যে সামান্য হাত-পা নাড়িয়ে দুকথা বলে অন্যের জিনিসের বিক্রি একাই ঢের বাড়িয়ে দিতে পারেন), এবং বিক্রি করে বেড়ানো হুমায়ূনের প্রধান কাজও নয়, (যদিও বেচাবিক্রি তার অর্থ-উপার্জনের প্রধান পথ ছিল, যেটা অনেকেরই) তাই ‘লেখক হিসেবে তাকে ধরতে না চাওয়ার প্রবণতা’ আমাকে ‘হুমায়ূন আহমেদ বিষয়ে অন্যদের ভূমিকা’ প্রসঙ্গে আগ্রহী করে তোলে।

হুমায়ূনকে নিয়ে যে সবাই স্মৃতি লেখে, ঘটনা লেখে, অভিজ্ঞতা লেখে, অনুভূতি লেখে, এমনকি লেখকরাও তার লেখা নিয়ে না লিখে, কী করে তার সাথে প্রথম দেখা এইসব লেখে, এমনকি সাহিত্যপাতায়ও শুধু স্মৃতি আর প্রীতি, (এই শুক্রবার, উনিশে জুলাইয়ের পরের দিন তার মস্ত মস্ত ছবি দিয়ে পেপার বেরোবে, মিলিয়ে দেখে নিতে পারেন), স্মৃতি এসবও সাহিত্য নিশ্চয়ই, কিন্তু খালি এসবই কেন?

হুমায়ূনকে নিয়ে যা কথা হয়, তার কারণ এ-ই যে পণ্য হিসেবে হুমায়ূনের বাজারমূল্য এখনো চড়া।

হুমায়ূনের লেখার কি আলোচনা হতে পারে না, নাকি তিনি সমালোচনারও অযোগ্য? ভালোবাসার ফানুশে মহাশূন্যে নিরর্থক যাত্রাই তার নিয়তি? তার লেখকজীবন নিষ্ফলা? নাকি আগামিতে বাংলাভাষায় লেখক বলে কিছু থাকবে না আর, সবই ‘স্টার’ হবে, সবার খালি স্মৃতি থাকবে, লেখা না!

লেখক হুমায়ূন যে একেবারে নেই, হুমায়ূনের দোষে কি দশের দৈন্যে, সে অন্য আলোচনা, কিন্তু তাকে নিয়ে যে শুধু কাতরতা প্রকাশ, তার কারণ কি এ-ই যে তার লেখা নিয়ে কথা বলা লোক কম, নাকি তার লেখা কথা বলার মতো নয় আদৌ?

ঐসব যারা লেখেন, তাদের জীবনে নিশ্চয়ই হুমায়ূনের মতো (যদি না তার থেকে বেশি প্রিয় হয়) প্রিয় আরও লোকজন আছেন, এমনকি তাদের আরও প্রিয় লেখকও আছেন, তাদের নিয়ে কিন্তু তারা শুধু স্মৃতি লেখেন না, বা ছাপানেঅলারা স্মৃতি বিষয়ক লেখা চায়ও না বোধকরি।

হুমায়ূনের ক্ষেত্রে কেন এ-রকম ঘটছে?

হুমায়ূন কি কেবলই বিক্রয়যোগ্য, ক্রেতা-আনয়নকারী নাম?

… …

COMMENTS

error: