আমায় ডেকো না :: হ্যাপিটাচ

আমায় ডেকো না :: হ্যাপিটাচ

SHARE:

আমায় ডেকো না
ফেরানো যাবে না
ফেরারী পাখিরা
কুলায় ফেরে না …

বিবাগী এ-মন নিয়ে
জনম আমার
যায় না বাঁধা আমাকে
কোনো পিছুটানের মায়ায়।।

শেষ হোক এই খেলা
এবারের মতো
মিনতি করি আমাকে
হাসিমুখে বিদায় জানাও।।

আমায় ডেকো না
ফেরানো যাবে না
ফেরারী পাখিরা
কুলায় ফেরে না …
[কথা : কাওসার আহমেদ চৌধুরী ।। সুর : লাকি আখান্দ ।। ব্যান্ড : হ্যাপিটাচ]

লাকি আখান্দের একটি জনপ্রিয় গান ‘আমায় ডেকো না ফেরানো যাবে না’। মনের মানুষটির প্রতি কষ্টময় এক অভিমান জড়ানো এই গানটি আজও যে-কোনো আসরে বা আড্ডায় সমান জনপ্রিয়। আজ এতগুলো বছর পরে শ্রোতার হৃদয়ে গানটির আবেদন এতটুকুও ম্লান হয়নি।

‘আমায় ডেকো না’ গানটির গোড়াপত্তন ঘটেছিল বিশ্ববিখ্যাত সেই এলবিমো  মিউজিকটা থেকে। “এলবিমো  মিউজিকটা খুব ভালো লাগত আমার কাছে”, — লাকি বললেন, — “সেই ’৭৬-’৭৭ সালের কথা, মিউজিকটা আমি খুব শুনতাম আর মনে মনে চিন্তা করতাম ওরা যদি পারে এ-ধরনের একটা মেলোডিয়াস মিউজিক তৈরি করতে তাহলে আমরা কেন পারব না।”

ঠিক তখনকার সেই দিনগুলো ছিল লাকির জীবনের একটা বিশেষ সময়। বেশ কয়েকটা কারণে তিনি একরাশ অভিমান বুকে নিয়ে সরে এসেছিলেন তার মনের মানুষের কাছ থেকে। শেষ করতে চাইছিলেন এই নিষ্ঠুর প্রেমের খেলা। থাক-না ভেতরের কষ্টটা ভেতরেই চাপা পড়ে, তাই অনেকটা হাসিমুখেই তিনি বিদায় নিতে চাইলেন প্রিয় সেই মানুষটির কাছ থেকে।

এমনই এক অসহনীয় সময়ে লাকি এলবিমোর সেই মেলোডি অনুসরণ করে সুর করলেন ‘আমায় ডেকো না’ গানটির। এরপরেই গানের কথার জন্য শরণাপন্ন হলেন গীতিকার কাওসার আহমেদ চৌধুরীর। দু-জনেই ছিলেন দু-জনার খুব ঘনিষ্ঠ, তাই লাকির সেই দুঃসহ প্রেমের বিমূর্ত ভাবাবেগ বোধহয় কাওসার আহমেদ চৌধুরীর মাঝেও সঞ্চারিত হয়েছিল। আর সেজন্যেই বুঝি তিনি লাকির সাথে মিল রেখে এ-ধরনের চমৎকার একটা গান লিখে ফেলেন।

একটা নাটকে প্রথম এই গানটি প্রচারিত হয় এবং জনপ্রিয়তার শীর্ষে চলে আসে। অবশেষে অ্যালবামের ফিতাবন্দি হয়ে ভক্তদের ঘরে ঘরে পৌঁছে যায় ’৮৫ সালে। ’৮৬ সালে বিটিভির একটি অনুষ্ঠানে সামিনা চৌধুরীর কণ্ঠেও গানটি আরো একবার শোনা যায়। গানটি রেকর্ডিং করা হয়েছিল এলভিস স্টুডিওতে।

গানপারটীকা : রচনাটা ছাপা হয়েছিল ২০০০ খ্রিস্টাব্দের আনন্দভুবন  ঈদসংখ্যায়। বর্ষ ৪ সংখ্যা ১৬, ০১ জানুয়ারি ২০০০। যৌথভাবে এটি লিখেছেন এম. এস. রানা ও রাসেল আজাদ। ‘জেনেসিস ২০০০’ শীর্ষক একটা ফিচারের আওতায় এইটা ছাপা হয়েছিল। যদিও প্রথম প্রকাশকালে এর কোনো শীর্ষনাম ছিল না, ব্যান্ডের নাম দিয়ে একেকটা গানের জন্মকাহিনি বিবৃত হয়েছিল, গানপারে এর পুনর্প্রকাশকালে ‘আমায় ডেকো না :: হ্যাপিটাচ’ শিরোনামে একে ক্যাপ্চার করা যাচ্ছে। ব্যান্ডলিডার প্রয়াত কম্পোজার-সিঙ্গার-স্যংরাইটার লাকি আখান্দের সঙ্গে আলাপের ভিত্তিতেই প্রতিবেদকদ্বয় লিখেছিলেন গানের গল্পটা। — গানপার

… …

গানপার

গানপার

মননাশ্রয়ী বিনোদনের সৃজনসম্ভার।
গানপার

COMMENTS

Posari IT Solution

ট্যাগগুলো