সূর্যাস্তগামী মাছ

সূর্যাস্তগামী মাছ

বাংলা কবিতার অ্যারোড্রামে অ্যারাইভ্যাল্ ঘটল ‘সূর্যাস্তগামী মাছ’ নিয়ে যে-কবির, এইটা তার ডেব্যু কবিতাবই, তিনি লিখছেন প্রধানত গদ্যপ্রবাহ ভর করে; প্রবণতাগত দিক থেকে এই কবি ছিন্নছবির স্থির-ও-চলচ্চিত্রগ্রাহক।

অজস্র অনুষঙ্গ ও উপানুষঙ্গ আহৃত হতে দেখা যায় তার কবিতায়; দেখতে প্রায়-নির্বিচার মনে হলেও কিন্তু নির্বিচার নয় সেই আহরণতরিকা, আবার শব্দ/চিত্রকল্পনা বাছবিচারের বালাই নাই তার মধ্যে বড়-একটা। আগেকার দিনের কবিদের মধ্যে যে-শব্দশুচিবাই, ভিক্টোরিয়্যান নৈতিকতার ন্যায় প্রেজুডিস, তা না থাকলেই সাহিত্যের পক্ষে স্বাস্থ্যকর হবার কথা।

হাসনাত শোয়েব কবিজীবনের মহরৎমুহূর্তে দেখিয়ে দিতে চেয়েছেন সূচনাকালীন দোলাচল ও দ্বৈধ সত্ত্বেও তার পক্ষপাত নিজের জন্য পৃথক একটি পোয়েটিক ডিকশন ও ভোক্যাব্যুল্যারি নির্মাণের প্রতি; নিষ্ঠ, তন্ময়, তৎপর, সংলিপ্ত। তৎসত্ত্বেও শোয়েব শব্দচয়নে উন্নাসিক নন, আবার নিজের কবিতাকে তিনি শব্দস্তূপ করে তুলতেও গররাজি।

প্রথানুগমনের ঢের দূর দিয়ে এই কবির যাত্রারম্ভ কবিতাপাঠকের প্রেম অথবা প্রত্যাখ্যানের অপেক্ষায়; তরুণ কবির রক্ত ও রভসে রাঙা বাংলা কবিতায় ‘সূর্যাস্তগামী মাছ’ অন্যতর উদয়ের আভাসবাহী। ইদানীং বালা কবিতায় যে-নতুনতাস্পন্দিত স্বরাগম লক্ষ করা যাচ্ছে, এই বই সেই-সমস্ত নবাগত স্বরগুলোর মধ্যে সনাক্তিযোগ্য উজ্জ্বল একটি।

বইটা বাইর হয়েছিল ২০১৫ সনে। এরপরে এই কবির আরও কয়েকটা কাব্যগ্রন্থ বোধহয় বেরিয়ে গেছে। এইটা ছাড়া আর দেখা হয় নাই কিছু।

লেখা : আতোয়ার কারিম

… …

COMMENTS

error: