দেখোয়াড়ের দিনপত্রী ৫ || রবিন দাস

দেখোয়াড়ের দিনপত্রী ৫ || রবিন দাস

SHARE:

শুধু পৌরাণিক চরিত্র তো নয়, হিন্দি অ্যাক্সেন্টে ‘আসুর’ উচ্চারণ করি কিংবা বাংলায় ‘অসুর’, এইটা একটা ধারণা বা আইডিয়ার নাম। দুনিয়ার যে-কোনো পৌরাণিক চরিত্রই তা, মানে আইডিয়া, একটা ধারণা, খালি একটা ব্যক্তিক্যারেক্টার নয় কেউই।

লিখিত বা মৌখিক পুরাণের ক্যারেক্টারগুলা বাস্তবের ব্যক্তিমানুষের বিশেষ বিশেষ মেন্টাল স্টেইট এক্সপোজ করে। এ-ও স্মর্তব্য যে মেন্টাল স্টেইট মাত্রই ফিজিক্যাল স্টেইট প্রভাবিত করে, এমনকি ডমিনেইটও, অতএব প্রত্যেকটা ভালোর উল্টাদিক শাদার উল্টাদিক রয়েছে, স্যানিটির বিপরীতে যেমন ইনস্যানিটি কিংবা শান্ত মুরতির বিপরীতে যেমন অশান্ত হিংস্রতা রয়েছে। এবং ব্যক্তি বলি বা ভুবন, যেহেতু যুগ্মবৈপরীত্যের তথা বাইন্যারি-অপোজিশনের এন্ডলেস খেলা, কাজেই প্রত্যেকটা পজিশনের একটা অপোজিশন রয়েছে।

যেমন অসুর, এর উল্টো সুর, এবং ভাইস-ভ্যার্সা। অ্যারাব মিথোলোজিতে যেমন শাইতান, ক্রিশ্চিয়ান মিথোলোজিতে স্যাটান, ভারতীয় পুরাণে তেমনি অসুর। সুরের বিপরীতে অসুর। অসুরের গা ঘেঁষাঘেঁষি সুর। চুলচিকন দূরত্ব শুধু।

‘ভুত সিলেক্ট’ স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মের ওয়েবধারাবাহিক ‘অসুর’ দেখতে দেখতে এই কথাগুলা ভাবতেসিলাম। দুনিয়ায় এখন ওয়েবসিরিজের রমরমা। আজেবাজে হাজারের ভিড়ে দাগকাটা ধারাবাহিকের সংখ্যাও অসাধ্য-গণনীয় বলতে গেলে। ‘নেটফ্লিক্স’ আর ‘অ্যামাজন’ ও অন্যান্য লোক্যালি পরিচিত ওয়েবস্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মের মাঝখানে ‘ভুত সিলেক্ট’ একেবারেই নয়া। ‘আসুর’ বা ‘অসুর’ সিরিজের কারণে এই স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম সম্পর্কে একটা সাগ্রহ ভরসা আমার জন্মাল নয়া আন্তর্জালিক বিনোদনপাটাতনটার উপর।

সিরিজের কাহিনি বলে আর প্যারা বাড়াব না। কাহিনি জেনে নেবার বহু সুযোগ অবারিত। শুধু বলি যে এইটা ভালো থ্রিলারের মধ্যে একটা কাউন্ট করতে পারেন আপনারা। আর্শাদ ওয়ার্সি লিড কাস্টদের একজন। উনার বলিউডি ফিল্মে কমেডি ক্যারেক্টারাইজেশনের বাইরে বেরিয়ে এইখানে কাজ করেছেন এবং জাত চিনাইসেন। মুন্নাভাই এমবিবিএস বা রাজু এলএলবি ইত্যাদি ফিল্মে যে-ওয়ার্সি, ত্রিসিক্সটি ডিগ্রির একদম বাইরে যেয়ে এই সিরিজে ক্যারেক্টারাইজেশন তার। অনবদ্য। উপভোগ্য।

ওই সিরিয়্যাল-কিলিঙেরই সিরিজ। সঙ্গে মিথোলোজির মিশেল। ফলে যেনতেন প্রকারেণ নয় যে দেখলাম মাস্তি মিলল ভুলে গেলাম। এইটা ভাবায়। বেশ সুর-অসুর নিয়া ভাবায়। এমনকি রিভিয়্যু করতে বসেও রিভিয়্যু করতে দেয় না। কাহিনিটা আর মুখ্য হয়া থাকে না। কাহিনি কহা খামাখা তাই। নিজে চেখে দেখতে হয়। থ্রিলারপ্রেমীদের জন্য কথাগুলো বলে গেলাম। রহস্য ও পুরাণের আচ্ছন্নতায় মেশা খুনাখুনি সিরিজের বাইরের দিককার ধুন্দুমার শুধু। রক্তহিম অনুভূতি হয়।

কাজেই দেখা যায়। দেখতে পারেন। পয়লা সিজনটাই গিয়েছে মাত্র। তবে শেষ হয়েছে এমনভাবে যে এর সেকন্ড সিজন সম্ভব মনে হয় এবং আরও জমজমাট হয়েই সম্ভব। যেমনটা মনে হয়েছে ‘সেক্রেড গেমস্’ শেষদিকে।

সিরিজনাম : অসুর ।। স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম : ভুত সিলেক্ট ।। অভিনয়ে : আর্শাদ ওয়ার্সি, বরুন সুবতি, অনুপ্রিয়া গোয়েঙ্কা এবং অনেকে আরও

… …

COMMENTS

error: