ব্লান্ট ভোয়েসেস

ব্লান্ট ভোয়েসেস

লোকে দেখি হুটহাট চাকরিবাকরি কাজকাম ছেড়ে দেয়। তারা বিয়াশাদি করে ফের ঘরদুয়ার ভেঙে দেয়। ইশকুলকলেজের পড়ালেখা মাঝপথে ফেলে রেখে বেরিয়ে আসে ইশকুলকলেজ থেকে। এই সময়টাই যেন কেমন যে কেউ কোথাও কোনোকিছুতেই ঠিকঠাক লাগিয়া থাকবার কমিটমেন্ট দেখাতে ব্যর্থ সবখানে।

টানেলের শেষ প্রান্তে, একদমই কিনারায় হলেও, একশতে একশভাগ খাঁটি সত্যি এইটাই যে, একটা আলো রয়েছে তাদের জন্যেই যারা শেষাব্দি লড়ে যায়।

অ্যাওয়ার্ড সেরিমোনির রেড কার্পেটে যখনই পা রাখি, নিজেরে সবসময় হেডলাইটের আলোয় হা-চক্ষু হরিণের ন্যায় বিপন্ন বিস্ময়কর একাকী জীব মনে হয়। গাড়িটা শাঁই করে একবার রাস্তা পারাইলেই নিঝুম অরণ্য আবার, নিজের চেনা জায়গাজমি, নিরাই নিজের অন্ধকার। গাড়ির আরোহীদের চোখ যদিও ততক্ষণে একদম ছানাবড়া হয়ে গেছে।

প্রেমে পড়লেই নিজেরা হ্যাপি থাকি এতই যে হ্যাপিনেসের ঠ্যালায় চাদ্দিকের লোকগুলার মধ্যে যারে পাই তারে ডেকে জনে জনে শুনাইতে চাই নিজের হ্যাপিনেসের গান। এইখানেই মনে হয় সেন্সর করা দরকার নিজেরে সবচেয়ে বেশি। নিজের হ্যাপিনেসের সুরক্ষা আগে নিজেরেই করতে হয়, কানে কানে প্রেমকাহিনি রটিয়ে বেড়াইলে হ্যাপিনেসের হানি হবার আশঙ্কা অমূলক নয়।

আমারে নিভিয়ে দেয়া চাট্টেখানি কথা নয়। আমি জ্বলবই। আমি কিছুতেই মুষড়ে পড়বার বান্দা নই।

জটিল মনোজগতের চরিত্রগুলা আমি বোধহয় ভালো ফুটাইতে পারি, যে-চরিত্রগুলা নানাভাবে বেদনাতাড়িত এবং যাদের মধ্যে বেতালা ঘাতপ্রতিঘাত ঘটে যায় সমানে।

এইটা তো প্রমাণের অপেক্ষা রাখে না যে একটা ভালো ম্যুভি বানাইবার লাইগা হান্ড্রেড মিলিয়ন ডলারের দরকার নাই।

সেই কাজগুলার খোঁজ আমি সবসময় করি এবং জড়িত হইতে চাই সেই কাজগুলার সঙ্গে যেইগুলায় একটা নয়া জায়গাজমি বাইরায় বা বাইরাইবার সম্ভাবনা থাকে। সেইগুলায় কাজ করেই আমি বেশি আরাম পাই যেইগুলা আজকালকের ভিড়ের চিন্তার বাইরের কাজ হিশেবে একটু হলেও মুখ তুলতে পারে।

দ্য অ্যাডজাস্টমেন্ট ব্যুরো  ম্যুভিটার লাইগা আমারে ড্যান্স শিখতে হয় এবং এই জিনিশটা আমারে দিয়া হবার চিন্তা করাটাও অসম্ভবের কাছাকাছি। শিখন চলাকালে ড্যান্সের জুতাজামা চাপিয়ে সেশনে এসে হাঁটুভরা হামাগুড়ি দিয়া কায়কসরত শেষে ভগ্নমনোরথে এক-সময় বাসায় ফিরবার পথ ধরতাম আর বাড়ি ফিরেই হাপুস নয়নে কাঁদতে বসতাম।

আমি ছিঁচকাঁদুনে নই। কিন্তু ঘটনা হচ্ছে, হাটভরা গাদাগুচ্ছের মানুষের সামনে আমারে এমনসব কাজ করতে হয় যেইগুলা আসলেই হৃদয়বিদারক ও করুণভাবে দেহপীড়াদায়ী।

চয়ন, সংকলন ও অনুবাদন : বিদিতা গোমেজ

… …

পড়ুন:

ব্লান্ট ভোয়েসেস (২)

বিদিতা গোমেজ
পরের পোষ্ট
আগের পোষ্ট

COMMENTS