ব্যালাড অফ অ্যা ক্যাটাস্ট্রোফিক ইয়ারফোন ও ই-মাইনরের সোনালি বিষাদ || সাব্বির পারভেজ সোহান

ব্যালাড অফ অ্যা ক্যাটাস্ট্রোফিক ইয়ারফোন ও ই-মাইনরের সোনালি বিষাদ || সাব্বির পারভেজ সোহান

টিলাগড় পয়েন্ট, আহত চড়ুই এবং অন্যান্য আলাপ :: চতুর্থ কিস্তি

SHARE:

৮.

ব্যান্ডের নাম মুডি ব্লুজ, গানটা হইল — সাটিনে মোড়া রাত্তির — নাইট্‌স ইন হোয়াইট সাটিন। তো, মুডি ব্লুজ এবং রেশমিরাতের সম্মোহন নিয়া জ্যাবারউকির আগে, ফিচারলেখনের নর্ম-ফর্মরে কেয়ার দিয়া, উইকিপিডীয় পণ্ডিত সাইজা জানান দিতে চাই, মুডি ব্লুজ হয় একটি ব্রিটিশ ব্যান্ড, উহার জন্ম নাইন্টিন সিক্সটিফোরে। মাগার, জন্ম নিলেই তো জন্ম নেওয়া হয় না, কান্দন দিয়া জানান দিতে হয় যে — হেই দুনিয়া, দ্যাহো আমি কানবার পারি, কোজিতো এর্গো  সাম, আমি কান্দি তাই আমি অস্তিত্বশীল। আর, এই-যে কান্নাকাটি, দিলের আর্মা অশ্রুনদীতে ভাসান দেওয়ার তাড়না কিংবা ঋতখোদাপানে মেঘ চাইয়া পানি চাইয়া কান্দনের ব্যাপারটা, মিউজিককরণ-কারণ, বাদন-বেদনের লিগা একটা কুইন্টেসেনশিয়্যাল ব্যাপার। আপনার ভিত্রে যদি কান্দন না থাকে তাইলে মিউজিক কন কি পোয়েট্রি — কোনোডাই আপ্নের হইব না। হুদাই ফাল পারবেন, লাভ নাই। অর্গাজমের লিগা টেস্টিকল ডিসেন্ডিং যেমন একটা প্রি-রিকুইজিট, শব্দ আর সুর দিয়া অর্গান বাজাইতে হইলে তেমনি দরকার অন্তরের ক্যাথার্সিস। যেইটারে আপনি বলতে পারেন — ক্রন্দন। আদারওয়াইজ, ত্যানা প্যাঁচাইবেন, স্ল্যাং মারাইয়া স্যাডিস্টানন্দ নিতে বলিতে হয়, উহা ফেলিবেন, উহা ছিঁড়িবেন, ইউটিউবে ভিউ পাইবেন, মাগার আপনি বিস্মৃত হবেন, জনতা আপনারে ভুলিয়া যাইবে, এ-বঙ্গের জেমস কিংবা মিডলফিঙ্গার উঁচাইয়া জিম মরিসন অথবা ফিল্মসি রকস্টার জনার্দন কিংবা গুরু হইতে পারবেন না; ভিউড্‌ হইবেন, কাল্ট হইবেন না। আপনি যদি আপনি না হন, ইন দ্য পরিক্রমা অব কাল, সাবস্ট্যান্ডার্ড রেপ্লিকা হইয়া হারাইয়া যাবেন; হারাইয়া যায়; হারাইয়া গিয়াছে।

Moody Blues 2

তো, মুডি ব্লুজ, সিক্সটিফোরে জন্ম নিলেও, অন্তরচ্ছেদী ক্ল্যাসিক কান্দনটা দিলো নাইন্টিন সিক্সটিসেভেনে, Days Of Future Passed অ্যালবাম দিয়া। মিউজিকবেত্তা মাফিক যেই কান্দন বিস্তৃত হয় নাইন্টিন সেভেন্টিটু নাগাদ মোট সাতটা অ্যালবাম অবধি; মিউজিক্যাল এলএসডি ট্রিপের কথা বাদ দিয়া অনলি অ্যালবাম-আর্ট আর নামের দিক থিকাই যেই অ্যালবাম সাতটা ইন্দ্রিয়ানুভূতির পক্ষে বেশ টেনে ধরার মতো; সোহিনীসিক্ত — সিডাক্টিভ।

.

Moody Bluesতো, নাইট্‌স ইন হোয়াইট সাটিনে যাবার আগে, ইফ ইউ আর ট্যু প্যাশনেট অ্যান্ড স্পিরিচুয়াল অ্যাবাউট ইউর এক্সপেরিয়েন্স অব রাইডিং অন দ্য মিউজিক, বেটার হয় Days Of Future Passed শুরু থেইকা শোনা শুরু করেন, ভাবা শুরু করেন, ভাসা শুরু করেন। মাগার, আমাগো যেহেতু সময় খুবই অল্প থাকে, স্ক্রল গ্যাপে, টিভিসিরিয়াল-ওয়েবসিরিজ চোখে সইলেও তারকোভস্কির দীর্ঘকাব্য চোখে রোচে না, সেহেতু, শতভাগ কমনের নিশ্চয়তা পেতে, মনোকর্ণের পরিশ্রম ও সময় বাঁচাতে সরাসরি ঝাঁপ মারতে পারেন — সাটিনে মোড়া রাত্তিরের অতলান্ত পশ্‌মিনা খাবে! যেইখানে আপনাকে রে থমাসের অমল বাঁশি জানায়া দিবে পশমিনা রাত শেষ হয় না; নিরন্তর সে বেড়ে ওঠে; চিঠিতে দিঠিতে চোখের কাজলে দৃষ্টিগ্রাসী মোহমেঘে সে অন্ধ করবে পলকে-পালকে — আদির জঠরে, দেহের বিবরে। লিড ভোক্যালিস্ট জাস্টিন হেওয়ার্ড বিষয়বাসনাবিসর্জনী অকাতর স্বরে, দেশান্তরী নীল দরিয়ার কান্না এঁকে সুরের আখরে জানায়া দিবে —

’Cos I love you
Yes I love you
Oh how I love you.

১০.

Moody Bluesনাইটস ইন হোয়াইট সাটিন তাই আপনারে ডাকতে থাকবে, মৃদু থেকে মৃদু, নিবিড়তর, নিবিড়ভ্র গোপন বাঁশির কান্না ওড়াতে, কান্না পোড়াতে, কান্নাপানি পানপূর্বক ঋজু-সঞ্জীব কান্নামাতাল নিশাক্রান্ত কিংখাবঘোরে। আপনি তখন আর্তনাদী, মরমিয়ারে ব্যথা জানাতে ভীষণ উন্মুখ — প্রবল প্রেমিক। দৃষ্টি তখন অদৃষ্টপূর্ব লাবণিমুগ্ধ ; চিঠি লিখেছেন, পাঠাতে পারেননি, প্রেমাস্পদ খুন হয়েছেন। তবুও আপনি ভালোবেসেছেন; তবুও আমরা ভালোবেসেছি; ১৯ বছরে — রেশমিস্মৃতি।

 

প্রগ রকের ওয়ান অব দি আর্লিয়েস্ট এই মিউজিকস্কেপ তাই আপনারে কাটবে — ব্লুজের ছুরিতে, কেয়ারলেস হুইস্পারে, উইকেড গেইমে, মেলোট্রনে, স্পোকেন ভার্সে। আঁধিয়ার রাত শহরের ছাদ রেট্রোকিডমোভ্যাপোরওয়েভ আনটোল্ড লাভ ই মাইনরের সোনালি বিষাদে এপিটাফ হয়ে প্রিয়াংশুপ্রেমে উচ্চারিত —

Cold hearted orb
That rules the night
Removes the colours
From our sight
Red is gray and
Yellow white
But we decide
Which is right
And
Which is an Illusion

(চলবে)

COMMENTS

error: