প্রতিষ্ঠানবিরোধিতা বিষয়ক অতিশয় গ্রামীণ ও পুরনো প্রবাদ

প্রতিষ্ঠানবিরোধিতা বিষয়ক অতিশয় গ্রামীণ ও পুরনো প্রবাদ

প্রতিষ্ঠান যতদিন না-ডাকছে, ততদিন আমি তিনসহস্র ভোল্টেজের প্রতিষ্ঠানবিরোধী; ডাক পেলে মুহূর্তেই প্রতিষ্ঠানবন্ধু। যতদিন না ডাকে, ততদিন তার মায়েরে বাপ। পাবো ডাক যেইদিন, হব শান্ত সেইদিন আমি বিদ্রোহী রণক্লান্ত। উদযাপিব ওয়াইট-ন্-ম্যাকেই  দিয়া সানন্দা যামিনী। কিন্তু ভ্রুপল্লবে প্রতিষ্ঠানডাক পাবার আগেই আমি চন্দনবনে অবস্থান নিয়ে এত গুরুচরণ হয়ে রয়েছি যে, এখন না-পারছি পিছাতে না-পারছি আগাতে। এইবার স্ট্র্যাটেজি চেইঞ্জ করব ভাবতেসি। কিন্তু প্রতিষ্ঠান অবিলম্বে ডাকবে আমাকে, ডেকে নিয়ে করবে আমাকে অথবা আদেশিবে করতে তাহাকে, এই চিনির দানার ন্যায় চোরাবিশ্বাস বয়সের সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে এবং সকালবিকাল প্রতিষ্ঠানশাপান্ত কমছে। মিইয়ে আসছে গলা আমার, ভক্তিরতি বাড়ছে এবং হচ্ছে বুদ্ধিরও খোলতাই। বিদ্যাপতিও প্রতিষ্ঠানফিয়াঁসে ছিলেন, গবেষণালব্ধ উদ্ভাবন আমার অতি সম্প্রতি। বিদ্যাপতি বলেছেন — কী বলেছেন? — প্রতিষ্ঠান রে, তুহুঁ মম শ্যাম সমান! রবীন্দ্রনাথও তো তা-ই, ছিলেন প্রতিষ্ঠানঠাকুর। রবিন বলেছেন — কী বলেছেন? — ওরে বুঝসমুজদার, ওরে আমার প্রতিষ্ঠানবিরোধী পাকা, দিনের আলো থাকতে থাকতে খুলে দে তোর কাছা! তাছাড়া নজরুল-জীবন তো পূর্ণাঙ্গ প্রতিষ্ঠানকুক্কুট, প্রমাণ করা খুব বেশি দুষ্কর হবে না। আর এই থিসিস প্রকাশিব আমি প্রিয়তম প্রতিষ্ঠানপদমূলে, অন্যত্র কুত্রাপি নহে। এইবেলা সাজায়াগোছায়া রাখতেসি সব। কবে ডেকে বসে ফট করে, এই এল বলে আমার সাধের প্রতিষ্ঠানবাসরীয় ডাক! তবে একটা কাজ আভি বাকি হ্যায়, সেইটা হলো, প্রতিষ্ঠানের সংজ্ঞা। কাকে বলে প্রতিষ্ঠান, কী কী ও কত প্রকার, ডেফিনিশন প্রতিষ্ঠানবিরোধিতার। ওইটা পাওয়া যায় বাজারে বারোমাস, মোড়ক বিভিন্ন, ফলানোর দরকার নাই সেচ-সার খর্চে। একটা সংজ্ঞা আমি খরিদ করেছিলাম বহুবছর আগে আমাদের পাড়ার মুদিদোকান থেকে, ওইটা দিয়াই গিরস্তালি কাজকাম চালাইতেসি। কিন্তু প্রতিষ্ঠানসংজ্ঞার সহি সবক আমি নিমু প্রতিষ্ঠানমশারির ভেতরে সেঁধিয়ে। সেই লক্ষ্যেই দিন গুজরাইতেসি।

জাহেদ আহমদ


গ্রাসরুটসের গান
গানপারে ম্যাগাজিনরিভিয়্যু

গানপার

Support us with a click. Your click helps our cause. Thank you!

COMMENTS

error: You are not allowed to copy text, Thank you