নিজের কথায় লিজ

নিজের কথায় লিজ

SHARE:

আমি একজন সাধারণ গৃহবধূ — এমন ভাব কখনো করি না।

কোনো বেকুব যদি আমাকে দশ লাখ ডলার দিতে চায় কোনো ছবিতে অভিনয়ের জন্য, তাহলে তাকে না বলার মতো অত বেকুব আমি নই।

আমার বিশ্বাস মনের ওপর; সকল কাজেই তো মনোযোগের প্রয়োজন পড়ে।

আমার বয়স এখন তিপ্পান্ন, আর আমি কি ভাবছি? ভাবছি, এতদিনে সাবালিকা হলাম আমি — আর হয়েছি সময়মতোই।

আমার একটা ঠ্যাং আছে, ফাঁপা। ওই ঠ্যাং দিয়ে, টেবিলের নিচ থেকে, যে-কোনো পুরুষকে আমি পান করতে পারি মদ হিশেবে। তবে মাতাল হই না আমি। আমার ধারণক্ষমতা ভয়ানক রকমের বেশি।

ক্লিয়োপেট্রা ছবির ব্যাপারটা অত মনে নেই আমার। তখন অন্য সব ব্যাপার ঘটছিল বেশি-বেশি।

অনেক পথ্যই স্বাস্থ্যকর নয়, সেগুলো চিন্তাচেতনায় প্রগতিশীল মাত্র।

ছবিতে অভিনয় ছাড়া আর-সব কাজেই আমি নার্ভাস হয়ে পড়ি।

স্ক্যান্ডালে জড়িয়ে পড়ার পরেই শুধু আসল বন্ধু চেনা যায়।

বিবাহ এক মহৎ প্রথা।

যারা আমাকে ভালোভাবে চেনে তারা এলিজাবেথ নামেই ডাকে আমাকে। লিজ নামটা আমার বড্ড অপছন্দ।

আমি জীবন দেখেছি। আমাকে শেখাবার আর কিছু নেই।

[‘নিজের কথায় লিজ’ শিরোনামটা ছাড়া বাকি লেখাটুকু সংগৃহীত। ২০০০ জানুয়ারি সংখ্যা ‘আনন্দভুবন’ থেকে এই নিবন্ধাংশটুকু গ্রহণ করা হয়েছে। এলিজাবেথ টেইলর (Elizabeth Taylor) অভিনয়শিল্পী হিশেবে যেমন ডাকসাইটে, তেমনি জীবনযাপনেও। অভিনেতা ও আবৃত্তিশিল্পী রিচার্ড বার্টন তো লিজের প্রেমিক ও পুনঃপুনঃবিবাহবন্ধনাবদ্ধ স্বামী হিশেবে ব্যাপক নন্দিত, বলা বাহুল্য নিন্দিতও, রয়েছে এলিজাবেথের আরও সমস্ত থৈ থৈ প্রণয়কাহন। উপরের নিবন্ধটি লিজের আত্মজবানি। — গানপার]

… …

পরের পোষ্ট
আগের পোষ্ট

COMMENTS

Posari IT Solution
error: