কেইটের কথাবাত্রা

কেইটের কথাবাত্রা

ভালো ও মন্দ দুই মিলে একটা মানুষ গড়ে ওঠে, এই দুইটা কাঁচামালেই মানুষ নামের মহলখানা বানানো। গড়ে উঠলেই তো হলো না, আগ বাড়তে হয়, মানুষ হিশেবে টেকসই হতে গেলে এগোতে হয়। এগোনোর জন্যে চেইঞ্জ দরকার। পরিবর্তনেই মানুষ আগায়।

থেমো না, হাঁটো, বাঁচো ও বাঁচতে দাও, মাফ করো ও ভুলে যাও। সত্যি সত্যি এই কথাগুলায় বিশ্বাস করি আমি।

তিরিশে পা রাখতেই ভীষণ মুসিবতে পড়েছিলাম ব্রণ নিয়া। মাবুদে এলাহি! বিকালে একটা রাইতে একটা ব্রণ আমার মুখের মানচিত্র রোজ রোজ বদলাইতে থাকে। সেই ফাঁড়া কাটিয়ে এসেছি, অ্যানিওয়ে।

শরীরে মেদভাঁজ জিনিশটাকে অসুন্দর মনে করে লোকে দেখতে পাই। কিন্তু আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি ছিপছিপা বা পৃথুলা যা-ই হোন আপনি কিংবা যে-বয়সেরই, ফিজিক্যাল কার্ভগুলা মানুষকে ন্যাচারাল, রিয়্যাল এবং বিশেষভাবেই নারী হিশেবে প্রেজেন্ট করে। রেখাবঙ্কিম ভাঁজ ও শরীরবল্লরী নারীকে আরও সুন্দর ও আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব হিশেবে হাজির রাখে।

আমি পাঁদি। আমি ঢেঁকুর তুলি। আমি রক্তমাংশের সুস্থস্বাভাবিক নারী।

রোম্যান্স জিনিশটা আমার কাছে স্বতঃস্ফূর্ততা আর সপ্রতিভতার নাম। রোম্যান্স নয় হীরার কানদুল বা দামি ধাঁধানো অলঙ্কার কোনো। রোম্যান্স বলতে আমি বুঝি একগোছা তাজা ফুল সদ্য সকালের শিশিরচোবানো অবয়বে একের হাত থেকে অপরের হাতে তুলে দেয়া।

জীবন খুবই ছোট, এবং তা আজই এবং এখানেই যাপনের জন্যে রাখা।

রান্নাঘর আমার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রান্নাঘরেই হৃদয় তাজা রাখবার মূল কারবার হয়।

চিবুক বা গাল বা চোখের নিচকার হাড়গোড় সুন্দর রাখার চেয়ে জীবন সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন রাখা ঢের জরুরি।

কাউকে ভালোবাসা মানে আগড়মবাগড়ম অনেককিছু নয়, কাউকে ভালোবাসা মানে তাকে গিঁটবাঁধা না রেখে ছেড়ে রেখে উড়তে-বাড়তে দেয়া, কাউকে ভালোবাসা মানে তাকে যেতে দেয়ার জন্যে সবসময় দুয়ার খুলিয়া রাখা।

চয়ন, সংকলন ও অনুবাদন : বিদিতা গোমেজ

… …

পড়ুন: 

কেইটের কথাবাত্রা (২)

বিদিতা গোমেজ
পরের পোষ্ট
আগের পোষ্ট

COMMENTS

error: