কথায় কথায় ক্যাথ্রিন কিনার

কথায় কথায় ক্যাথ্রিন কিনার

এমন অনেক বড় বড় অভিনেতা আমি চিনি যারা মাথায় খাটো।

উচ্চাকাঙ্ক্ষী আমি না আদৌ। তবে যাদের মধ্যে দেখতে পাই ভীষণ উচ্চাকাঙ্ক্ষা তাদেরে খেলাইতে ভাল্লাগে আমার।

লোকে সবসময় মিলনান্তক একটা ভালো কমেডি সিনেমাই দেখতে চায় বলে আমার মনে হয়।

সিনেমার একটা-কোনো অংশের অভিনয়ে আপনারে পার্ফেক্ট দেখতে চায় দর্শক, তার মানে এরা আপনার অভিনয়প্রতিভার ওপর আস্থা রাখে না, তারা বুঝতেই চায় না যে প্রথাগত পার্ফেকশনেরও পরিবর্তন সম্ভব আপনারে দিয়া। আসলে বেশিরভাগ মানুষই শিল্পরসকষরিক্ত, সবকিছুরেই তারা আক্ষরিকভাবে দেখতে অভ্যস্ত।

পাব্লিক ফিগার বলতে যা বোঝায় আমি ঠিক তা নই। এমনিতেই আমি খুব বেশি জমায়েতে যাই না, আর গেলেও অবস্থা এমন কখনোই হয় না যে লোকে আমার জন্য প্রবেশপথে জটলা করছে।

আজকাল দেখবেন বেশিরভাগ লোকেই বিখ্যাত হতে চায়। যেনতেন প্রকারে স্রেফ বিখ্যাত। ব্যাপারটা আসলে একটা হাবাগোবা রাজ্যই চিত্রিত করে। মানে, এরা জানেই না বিখ্যাত হওয়ার পূর্বাপর পরিস্থিতি কেমন।

অন্য কোনোকিছু করার পক্ষে আমি ভীষণ অযোগ্য। অভিনয় করার পক্ষে আমার যোগ্যতা অনেক অনেক বেশি।

যেসব সিনেমায় আমি অভিনয় করি সেগুলো খুব বেশি লোকে দেখে না কথাটা সত্যি, কিন্তু আমার মনে হয় এই না-দেখাটা আমার লাইগা শাপে বর হয়েছে সবসময়।

নিরাপত্তাহীনতা আমাদের চারপাশে একটা সাধারণ ঘটনা এবং সর্বত্র কমবেশি বিরাজিত। নিরাপত্তাহীনতায় আমি কখনো ভড়কাই না বা মুষড়েও পড়ি না।

ম্যুভি বানানোয় গাদাগুচ্ছের লোক থাকা কাজের কথা না। যত বেশি লোকের সম্পৃক্ততা তত বেশি বাজে হয় ম্যুভিটা। সাধারণভাবে এই কথাটা ছায়াছবি নির্মাণের লগে লিপ্ত লোকদের মনে রাখা দরকার।

স্ক্রিপ্টে একটা ক্যারেক্টারেরে আপনি যদি নিঃশ্বাস নেয়ার সুযোগটা দেন, ক্যারেক্টারটা জ্যান্ত হবে।

চয়ন, সংকলন ও অনুবাদন : বিদিতা গোমেজ

… …

COMMENTS

error: