রাধারমণ দত্ত পদাবলি : ‘ভ্রমর কইও গিয়া’ এবং দুটি কথা || অনিমেষ বিজয় চৌধুরী

রাধারমণ দত্ত পদাবলি : ‘ভ্রমর কইও গিয়া’ এবং দুটি কথা || অনিমেষ বিজয় চৌধুরী

সহজিয়া বৈষ্ণব ধারার সাধক কবি রাধারমণ দত্তের ‘ভ্রমর কইও গিয়া’ গানটির বাণী কি আমরা ঠিকভাবে গাইছি?

ভারতের পশ্চিমবাংলায় নির্মিত একটি চলচ্চিত্রে (প্রাক্তন) গানটি ব্যবহার করা হয়েছে| প্রখ্যাত শিল্পী সুরজিৎ চ্যাটার্জীর কন্ঠে চলচ্চিত্রে গীত হয় এই গান|

চলচ্চিত্রে যেভাবে গীত হয়েছে তা নিচে দেয়া গেল :

ভ্রমর কইও গিয়া
শ্রীকৃষ্ণ বিচ্ছেদের অনলে
আমার অঙ্গ যায় জ্বলিয়া।

কইও কইও কইও রে ভ্রমর
কৃষ্ণরে বুঝাইয়া
মুই রাধা মইরা যাইমু
কৃষ্ণহারা হইয়া|

আগে যদি জানতাম ভ্রমর
যাইবা রে ছাড়িয়া
মাথার কেশর দুইভাগ করি
রাখিতাম বান্ধিয়া|

ভাইবে রাধারমণ বলে
শোনো রে কালিয়া
নিইভ্যা ছিল মনের আগুন
কে দিল জ্বালাইয়া।

এটি একটি বিচ্ছেদ-অঙ্গের গান যেখানে শ্রীমতী রাধারাণী শ্রীকৃষ্ণের বিরহে তাঁর কি দশা হয়েছে তা জানাতে ভ্রমরকে দূত হিসেবে পাঠাচ্ছেন শ্রীকৃষ্ণের কাছে — এ তারই বর্ণনা|

কিন্তু ভণিতাযুক্ত পদে যখন বলা হচ্ছে ‘ভাইবে রাধারমণ বলে শোনো রে কালিয়া’ — তখন শ্রীকৃষ্ণ সাক্ষাৎ হয়ে যান| বিচ্ছেদের গানে যেখানে কালিয়া অনুপস্থিত বলে ভ্রমরকে সামনে রেখে রাধারাণী খেদ করছেন সেখানে হঠাৎ করে কালিয়ার আগমনে মহাজনী পদের প্রতি কি সুবিচার করা হলো? প্রশ্নটি বিদগ্ধ মহলের কাছে রাখতে চাই|

বলা বাহুল্য, উপরোক্ত বিষয়টি একমাত্র উদাহরণ নয়|

ধারাবাহিক গানালাপ ১

… …

অনিমেষ বিজয় চৌধুরী

COMMENTS

error: