নৃমাংসভক্ষণ || শিবু কুমার শীল

নৃমাংসভক্ষণ || শিবু কুমার শীল

নেটফ্লিক্সের Dahmer — এই কাজটি নিয়ে নেটফ্লিক্স ভিউয়ারদের সতর্ক করছে একটু সাবধানে বুঝেশুনে দেখবার জন্যে। ফলে ট্রেইলার দেখে বুঝলাম এতে ক্যানিবালিজম আছে। এর আগে নেটফ্লিক্সের আরেকটা সিরিজ কন্টেন্টে ক্যানিবালিজম ছিল। মানে, মানুষের মাংস মানুষ ভক্ষণ করছে

চার্চের আধিপত্যের সময়টাতে — মানে, প্রিরেনেসাঁস সময়ে ঈশ্বরই ছিল মানুষের সীমানা — কথাটি ফ্রেঞ্চ ফিলোসফার জর্জ বাতাই বলেছিলেন। পরবর্তীতে আধুনিক সময়ে যৌনতাই ছিল সর্বোচ্চ সীমা। বাতাইয়ের উপন্যাস পড়লেই বোঝা যাবে তিনি কী করে সেই সীমার সীমানা নিয়ে কাজ করেছেন। এই গুরুতর প্রশ্ন বাতাই করে গেছেন।

এখন শিল্পসাহিত্যে সীমা/সীমানা কি তার নিজের শরীর? নিজেকে হত্যা, নিজেকে ভক্ষণ করার ভেতর দিয়েই কী আমি আমার সীমানা লঙ্ঘন করছি বা করতে চাই? কিন্তু শরীর তো এক বহুবিধ ধারণাও। এই একই শরীরে আপন  ও অপর  থাকে। এই একই শরীর ছেড়ে যে চলে যায় সে কে? আর যা থাকে তা কি জাগতিক সীমানা?

সীমার সীমানা খুব মেজর একটা ইস্যু। দার্শনিকরা এ নিয়ে সবসময় চিন্তিত ছিলেন। এই সীমানার সাথে পাওয়ার, এথিক্স, ভ্যালুজ … অনেককিছুই সম্পৃক্ত। একে এত সহজভাবে শুধু পরিবারের উপর চাপিয়ে দিয়ে বা ব্যক্তির শুধু নিজস্ব ব্যাপার হিসেবে আমি দেখতে চাই না। আর তাতে ঘৃণা বা মেনে নেওয়া দিয়েও কিছু যায় আসে না যতটা তা বাস্তব ও নির্মম সত্য।

ক্যানিবালিজম নিয়ে আমি ততটা চিন্তিত না যতটা না একে সীমা নির্ধারণী হিসেবে দেখা হচ্ছে। আমার প্রশ্নটাই ছিল সীমার সীমানা সংক্রান্ত যে নতুন ধারণা সমাজে দেখতে পাচ্ছি তা নিয়ে। তবে আমাদের মতো সমাজে সীমা হিসেবে এখনো যৌনতাই মানদণ্ড, খুব সরল করে বললে।


শিবু কুমার শীল রচনারাশি

গানপার

COMMENTS

error: You are not allowed to copy text, Thank you