ঈদ, মাতৃতান্ত্রিকতার ইকুইভ্যালেন্ট || আনম্য ফারহান

ঈদ, মাতৃতান্ত্রিকতার ইকুইভ্যালেন্ট || আনম্য ফারহান

ঈদ হইল মাতৃতান্ত্রিকতার ইকুইভ্যালেন্ট একটা ব্যাপার।
সরি, কথাটা এইভাবে বলছি জন্য।
সভ্যতা পুরুষতান্ত্রিক ধইরা নিয়া বোঝার ট্রাই করলে সুবিধা হবে।

আসলে, যেই জায়গায় নারী ও পুরুষ উভয়ের কন্ট্রিবিউশনের ধারক এই পৃথিবী, সেই জায়গায় মাতৃতান্ত্রিকতার গুরুত্ব পুরুষতান্ত্রিকতার ভিতর দিয়াই প্রতিষ্ঠিত বইলা তা আলাদা কইরা বলার গুরুত্ব আসলেই কম।

তবে, মাতৃতান্ত্রিকতার জায়গাটাকে লোকেট করতে হইলে পুরুষতন্ত্রকে যেভাবে জায়গা করে দিতে হয়, তাতে আমি মনে করি কোনো সমস্যা নাই। কারণ, পৃথিবীতে পুরুষের গুরুত্ব নারীর অধীন কীভাবে হয় তা আমার যেমন বুঝে আসে না, একইভাবে নারীর শ্রেষ্ঠত্ব ঘোষণা করার মধ্য দিয়ে পুরুষের ওইটা অর্জিত হয় না। পুরুষরা অতীব ভায়োলেন্ট, ক্যাপাসিটির জায়গা থেকে ওইটা না ধইরাই বলতেছি।

ভায়োলেন্ট হওয়া নারী-পুরুষের ক্ষমতা স্বাতন্ত্র্যের বাইরে রাইখাই এইটা বলা। কারণ, নারীরা মোর ভায়োলেন্ট। পুরুষকে প্রভাবিত করার জায়গা থেকেই তা উৎসারিত বইলা জানবেন, তাহলে বুঝতে সুবিধা হবে।
তাতে কইরা, নারীর ক্যাপাসিটিকে রাজনৈতিকভাবে বিলুপ্তির হুমকিতে ফেলা হয়। তা তো আমরা করতে পারি না। আর ওইটাই বলবার বিষয়।

উৎসবের যেই রাজনীতি, তা কেবলই পুরুষতান্ত্রিকতার অফার নয়।
নয় জানবেন।

১১/০৪/২০২৪, রোজার ঈদের দিন


আনম্য ফারহান রচনারাশি
ঈদসংখ্যা গানপার  

COMMENTS