ভ্রমণবৃত্তান্ত, সচিত্র || ফজলুররহমান বাবুল

ভ্রমণবৃত্তান্ত, সচিত্র || ফজলুররহমান বাবুল

এই ভ্রমণবিবরণ ‘শিলঙের রৌদ্র-মেঘে’ নামে বিশেষত ব্যক্তিক হলেও ভ্রমণপিয়াসি পাঠকের মনকে অনুরঞ্জিত করবে বলেই মনে করা যায়। এটা ভারতভূমির মেঘালয় রাজ্যের শিলঙে নিসর্গের বুকে মেঘ-রোদ্দুর, মানুষ তথা এক বিশেষ সাংস্কৃতিক আবহে লেখক নাজমুল হক নাজু-র ব্যক্তি-পর্যবেক্ষণ। ব্যক্তি তথা লেখকের অভিজ্ঞতা বা উপলব্ধিকে অনেকটা সংক্ষিপ্তাকারে গ্রন্থিত করলেও কৌতূহলী পাঠক বর্ণিত অভিজ্ঞতাগুলোর সঙ্গে আপন-আপন ভ্রামণিক মননসামর্থ্যে বিচরণ করতে পারেন। শিলঙের রৌদ্র-মেঘের বৃত্তান্তে সুযোগটা রাখা আছে।

নিশ্চয় নানান দিক থেকে ভ্রমণ মানুষের জন্য একটা আনন্দের, ভালো লাগার ও শেখার ব্যাপার; তাই অনায়াসে ভাবা যায়, নাজু-ভ্রামণিক দলের এই ভ্রমণপর্বটি ছিল প্রকৃত অর্থেই নতুন-কিছুর অন্বেষণ; লেখকের সহজ বয়ানে পাঠক যাকে উপলব্ধি ও উপভোগ করতে পারেন কোনও-এক নতুন উষ্ণতায়। অবশ্য তার জন্য দূরের মেঘালয়ে (শিলঙের) পাহাড়ছোঁয়া মেঘ-রোদ্দুর, ঝরনা কিংবা এক অপর সংস্কৃতি সম্পর্কে আমাদের কিছু পাঠকীয় অভীপ্সা/কৌতূহল থাকা চাই।

আমরা যারা কখনও যাইনি শিলং তাদের পক্ষে তো প্রথম দেখায় শিলঙের মাটি, মানুষ, মেঘ-রোদ্দুর, ঝরনা, পথঘাট সহ সবই নতুন। তবে, শিলঙেও আছে সাদা-সাদা মেঘ কিংবা কুয়াশায় ঢাকা সুনীল আকাশ, শিলঙেও রোজ-রোজ  ভোর হয়, বৃক্ষডালে বসে পাখি ডাকে, সন্ধ্যাদীপও জ্বলে।


বই : শিলঙের রৌদ্র-মেঘে; লেখক : নাজমুল হক নাজু; প্রচ্ছদ : অরূপ বাউল; ধরন : পেপারব্যাক ভ্রমণাখ্যান; প্রকাশকাল : ফেব্রুয়ারি ২০২৪; প্রকাশক : রুহিনা হক, ঘাস প্রকাশন; মুদ্রক : ছাপাকানন, সিলেট; প্রাইস : ২০০ টাকা


ফজলুররহমান বাবুল রচনারাশি
গানপারে বইরিভিয়্যু/বইনিউজ

COMMENTS

error: